টাঙ্গাইলের সখীপুরে অভিনব কায়দায় প্রতারণার মাধ্যমে এক ব্যবসায়ীর আড়াইলাখ টাকা ও স্বর্ণ অলংকার হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দিয়েছে স্ত্রী আশা আক্তার। ভুক্তভোগী স্বামীর নাম আল-আমীন। পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে তার বাড়ী। রেনাজ সিনেমা হলের সামনে ফেক্সিলোড ও মোবাইল সার্ভিসিং এর দোকান করে সে।

আলআমীন জানায়, ভালবেসে তাদের বিয়ে হয়েছে দুই পরিবারের অমতে। যার কারনে পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড জামতলা মাদ্রাসার সাথে ভাড়া বাসায় থাকেন দুজন। নতুন সংসারের প্লানিং করতে গিয়ে পনের দিন আগে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। স্ত্রী চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা থাকায় সময় পেলেই বাসায় এসে খোঁজ খবর নেন স্বামী। নিজের ব্যবসার টাকা স্ত্রী কাছেই রাখতে দিতেন স্বামী।

আল-আমীন প্রতিদিনের মতই মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দসন্ধ্যায় বাসায় ফিরে দেখেন তার স্ত্রী আশা আক্তার বাসায় নেই। নিজের বাসা সহ আশেপাশের বাসায় খুঁজ নিয়ে স্ত্রীকে পাওয়া যায়নি। বিছানায় একটা চিঠি দেখতে পান তার স্বামী। চিঠিতে লিখা আছে আশা আক্তার তাকে ছেড়ে চলে গেছেন। সে যেন অন্য মেয়েকে নিয়ে সুখে থাকে। আল-আমীন চিঠি খানা পরে পরিচিত সব জায়গায় খোঁজ খবর নিয়ে স্ত্রী আশা আক্তারের সন্ধান পাননি।

আশা আক্তার পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের নালারচালা এলাকার আমীর হামজার মেয়ে। আল আমীন আশা আক্তার এর ৫ম স্বামী।
এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় অভিযোগ বা মামলা দায়ের হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *