যে হাঁস খুঁজতে নদীর পানিতে নেমেছিলেন, সেই হাঁসটি জীবিত পাওয়া গেলেও লাশ হয়ে ফিরেছেন হাঁস-মুরগির ব্যবসায়ী। নিখোঁজের ১৮ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বৃদ্ধ আব্দুল লতিফ বেপারীর লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউপির বয়ড়া ব্রিজের নিচে সূবর্ণখালি নদীতে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

আব্দুল লতিফ সরিষাবাড়ী পৌরসভার ভুরারবাড়ি গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলী মন্ডলের ছেলে।

পোগলদিঘা ইউপি সদস্য মোবারক হোসেন জানান, হাঁস-মুরগি ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ সাপ্তাহিক হাট উপলক্ষে বুধবার ২টার দিকে বয়ড়া ব্রিজের ওপর হাঁস নিয়ে বসেছিলেন। এ সময় তার একটি হাঁস লাফ দিয়ে নদীতে পড়ে যায়। হাঁসটি ধরার জন্য তিনি পানিতে নামলে কিছুক্ষণ পর নিখোঁজ হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে নেমে অভিযান পরিচালনা করেও তার সন্ধান না পেলে সন্ধ্যা ৬টার দিকে তারা ফিরে যান। বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় জেলেরা মাছ ধরার জন্য নদীতে নামলে আব্দুল লতিফের লাশ পাওয়া যায়। এসময় হারিয়ে যাওয়া হাঁসটিকেও জীবিত উদ্ধার করে এলাকাবাসী।

তারাকান্দি তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ (পুলিশ পরিদর্শক) আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশের সুরতহাল শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সরিষাবাড়ী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বদিউজ্জামান উজ্জল জানান, আব্দুল লতিফ সহজসরল একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, যে হাঁসের জন্য তিনি পানিতে নামলেন সে হাঁসটি জীবিত থাকলেও তিনি মারা গেলেন। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *